ইসলামিক স্কলার ড. মোস্তাফিজুর রহমানের ইন্তেকাল ও দাফন।

ইসলামিক স্কলার ড. মোস্তাফিজুর রহমানের ইন্তেকাল ও দাফন

প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ও বিশিষ্ট ইসলামিক স্কলার শায়খ ড. মাওলানা মুহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান (৫৭) রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)

ড. মোস্তাফিজুর রহমান নিজ জন্মস্থান কালকিনিতে গড়ে তোলেন কালকিনি শিক্ষা ফাউন্ডেশন (কাশিফা)। দারুল কুরআন একাডেমি। কালকিনি প্রেসকাবের দাতা সদস্যও ছিলেন তিনি।

কর্ম জীবনে তিনি সৌদি দূতাবাসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এরআগে তিনি বাংলাদেশ বেতারের বর্হিবিশ্ব কার্যক্রমের সিনিয়র সংবাদ পাঠক ছিলেন। সরকারি মাদ্রাসা আলিয়া ঢাকা’র অতিথি অধ্যাপক হিসেবে ক্লাস নেন।

ড. মোস্তাফিজুর রহমান মাদারীপুর জেলার কালকিনি থানার কয়ারিয়া গ্রামের জন্মগ্রহণ করেন। তিনি গুরুত্বপূর্ণ অনেক গ্রন্থ রচনা করেন। তাঁর লিখিত বই বাংলাদেশসহ বিশ্বের অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে সহপাঠ্যক্রম হিসেবে পড়ানো হয়।

ড. মোস্তাফিজুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগ থেকে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হয়েছিলেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ২ মেয়ে, শিক্ষক-ছাত্র ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

রাজধানী গুলশানের কেন্দ্রীয় (আজাদ) মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে কয়ারিয়া ঈদগাহ মাঠে দ্বিতীয় জানাজা শেষে নিজের প্রতিষ্ঠিত দারুল কুরআন একাডেমি সংলগ্ন পারিবারিক কবরস্থানে পিতা-মাতার কবরের পাশেই চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন এলাকার জনপ্রিয় শায়খ ড. মুহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান।

আল্লাহ তাআলা প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ ও ইসলামক স্কলারকে জান্নাতের সর্বোচ্চ মাকাম দান করুন। আমিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *